শুধুই কি বন্ধুত্ব?

প্রেমের ফ্রেম আছে। কিন্তু বন্ধুত্বকে ফ্রেমে বন্দী করা যায় না। এই সমাজে ছেলে-মেয়ের মধ্যকার সম্পর্ককে প্রেমের কাঠামোতেই বন্দী করা হয়। তার ওপর তারকা হলে তো কথাই নেই। নানান মুখরোচক সংবাদ প্রকাশিত হয়ে তাঁদের নিয়ে।

বলিউড তারকা সালমান খান ও শিল্পা শেঠিকে নিয়ে এক সময় এমনই এক খবর প্রকাশিত হয়। তাঁরা নাকি প্রেমে হাবুডুবু খেয়েছেন। বিষয়টি নিয়ে দু’জন এতদিন চুপ থাকলেও সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে মুখ খোলেন শিল্পা শেঠি। তাঁর কথায়, সালমান আমার খুব ভাল বন্ধু। আসলে তখন সহকর্মীদের মধ্যে আস্থা এবং অন্তরঙ্গতা ছিল। ও খুব ভাল মানুষ। এমনও হয়েছে, মাঝরাতে সালমান এসেছে আমার বাড়িতে। আমি ঘুমিয়ে পড়েছি। ও আমার বাবার সঙ্গে বসে মদ্যপান করেছে। আমার মনে আছে, বাবা মারা যাওয়ার পর আমাদের বাড়িতে এসে ও সোজা বার টেবিলে গিয়ে মাথা নিচু করে কেঁদে ফেলেছিল।’ এখনো নাকি তাঁরা কর্মক্ষেত্রে এবং বিভিন্ন পারিবারিক আড্ডায় একসঙ্গে হইচই করেন।

বলিউডে এমন ঘটনা আরও রয়েছে। হালের দুই সেনসেশন আলিয়া ভাট ও সিদ্ধার্থ মালহোত্রাকে নিয়েও প্রেমের গুঞ্জন উঠেছিল। একসঙ্গে ‘স্টুডেন্ট অব দ্য ইয়ার’সহ পরপর দু’টি ছবিতে অভিনয় করার পর দু’জনকে ঘিরে প্রেমের গুঞ্জন ওঠে। এরপর আলিয়া রণবীরের সঙ্গে জড়িয়ে গেলে গুঞ্জন থেকে অনেকটা মুক্তি পান তাঁরা। কিন্তু এখনো সিদ্ধার্থ মালহোত্রাকে আলিয়ার ‘এক্স’ বলা হয়। অথচ বিষয়টি নাকি আদৌতে তেমন নয়। আলিয়া বরাবরই তাঁর ভালো বন্ধু। `আমরা আমাদের সফর একসঙ্গে শুরু করেছি। একসঙ্গে দুটি ছবিতে অভিনয় করেছি। বরুণ, আলিয়া, আর আমি এখনও খুব ভালো বন্ধু। আর সেই ভালো সম্পর্কটা সবসময়েই থাকবে।` সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে বিষয়টি এভাবেই পরিষ্কার করেন সিদ্ধার্থ।

শাহরুখ খান ও জুহি চাওলা বলিউডের চিরসবুজ বন্ধু জুটি। দু’জনের বন্ধুত্ব একেবারে পারিবারিক। `রাজু বনগয়া জেন্টলম্যান` ছবি থেকেই নাকি দু’জনের সখ্যতা এতটাই বেশি যে, তাঁরা একসঙ্গে একটি ব্যবসায়িক উদ্যোগেও সামিল হন। একজোগে কিনে নেন `নাইট রাইডার্স` দলটিকে।

অভিনেতা রণবীর সিং ও পরিচালক জোয়া আখতার -এর বন্ধুত্ব নানা কারণেই আলোচিত। জোয়ার পরিচালনায় ‘দিল ধড়কনে দো’ সিনেমায় অভিনয়ের সময় থেকেই গাঢ় হয় তাদের বন্ধুত্ব। সামনেই জোয়ার ‘গালি বয়’ সিনেমায় আবারও দেখা যাবে রণবীরকে।

নির্মাতা করণ জোহরের সঙ্গে অভিনেত্রী টুইংকেল খান্নার বন্ধুত্ব এখনো বহাল। যদিও একসময় তাঁদের নিয়ে নানান কথা রটে। মহারাষ্ট্রের বোর্ডিং স্কুলে একসঙ্গে পড়ার সময় থেকেই তাঁদের মধ্যে বন্ধুত্ব গড়ে ওঠা। সুখে-দুঃখে একে অপরের পাশে দাঁড়ায়। করণ জোহর ভালো বন্ধু কারিনারও। `কাল হো না হো` ছবিতে অভিনয়ের জন্য কারিনাকে প্রস্তাব দিয়েছেলেন করণ। কিন্তু তখন সে প্রস্তাবে সাড়া না দিলেও পরে করণের `কাভি খুশি কাভি গাম` ছবিতে অভিনয় করেন কারিনা। সেই থেকে বন্ধুত্বের শুরু। এখনও রয়েছে তাঁদের সেই সম্পর্ক। করণকে নিজের ফিলোসফার ও গাইড মানেন কারিনা।

কারিনার আরেক বন্ধু বলিউডের প্রখ্যাত পোশাক ডিজাইনার মনীশ মালহোত্রা। তাঁর নকশা করা বিয়ের পোশাকেই পতৌদির নবাব তথা বলিউডের অভিনেতা সাইফ আলী খানের সঙ্গে গাঁটছড়া বেঁধেছেন কারিনা।

টাইগার শ্রফ ও শ্রদ্ধা কাপুরের বন্ধুত্বও স্কুল জীবনের। দুজনের পথচলাটা কিন্তু বেশ দীর্ঘদিনেরই বলা চলে। মুম্বাইয়ে থাকাকালীন একই স্কুলের একই ক্লাসে পড়াশোনা করেছেন শ্রদ্ধা ও টাইগার।