আবারও সুখের ঘরে দুঃখের আগুন, কাভানিকে একঘরে করেছেন নেইমার-এমবাপ্পে!

ফ্রেঞ্চ লিগ ওয়ানে পেনাল্টি নিয়ে নেইমার ও এডিনসন কাভানির দ্বন্দ্ব বেশ নাড়া দিয়ে যায় ইউরোপীয় ফুটবলে। এর প্রভাব পড়ে প্যারিস সেন্ট জার্মেইয়ের (পিএসজি) ড্রেসিং রুমেও। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে ছড়ায় নানা গুঞ্জন। নাটকীয়তার পর সমাধান হয়েছিল নেইমার-কাভানি দ্বন্দ্বের।

চলতি মৌসুমে টানা ৯ জয়ে ফরাসি লিগ ওয়ানে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে রয়েছে পিএসজি। নেপথ্য কারিগর আক্রমণত্রয়ী—নেইমার, কিলিয়ান এমবাপ্পে ও এডিনসন কাভানি। তবে ফরাসি গণমাধ্যমের বরাতে জানা যায়, ভেতরে ভেতরে তাদের সুখের ঘরে আবারও লেগেছে দুঃখের আগুন।

ঝামেলা বেড়েছে এতটাই যে তিনজনের মাঠের খেলায়ও এই চিত্র ফুটে উঠছে। ফরাসি সংবাদমাধ্যম ‘এল ইকুয়েপ’ বলছে, একদিকে জোট বেঁধেছেন নেইমার-এমবাপ্পে, অন্যদিকে একা কাভানি। পাঁচ গোল এবং তিনটিতে অবদান রাখার পরও কাভানি মাঠে নিজেকে নিঃসঙ্গই অনুভব করছেন।

সংবাদমাধ্যমটির মতে, কাভানিকে একপ্রকার এড়িয়েই চলছেন নেইমার-এমবাপ্পে। বলা ভালো, মাঠে তাকে একঘরে করে রেখেছে এই জুটি। একটি পরিসংখ্যান তুলে ধরে তা প্রমাণও করেছে এল ইকুয়েপ।

সংবাদমাধ্যমটির পরিসংখ্যানে দেখা যায়, নেইমার প্রতি ২০০ বলে ২৫ শতাংশ পাস দিচ্ছেন এমবাপ্পেকে। এমবাপ্পে আবার নেইমারকে পাস দিচ্ছেন ৩১ শতাংশ। অথচ নেইমারের থেকে কাভানি পাচ্ছেন মাত্র ০.৫ শতাংশ বল আর এমবাপ্পের থেকে ৫ শতাংশ! এই পরিসংখ্যান দিয়েই বোঝা যায়, মাঠে নেইমার-এমবাপ্পের কাছে কতটা অবহেলার শিকার হচ্ছেন কাভানি!

এল ইকুয়েপ-এর পরিসংখ্যান
শুধু তা-ই নয়, লিওনের বিপক্ষে ম্যাচে প্রথম ৪০ মিনিটে কাভানিকে একটিও বল দেননি নেইমার এবং এমবাপ্পে। বরং পিএসজির এই দুই তারকা নিজেদের মধ্যে বোঝাপড়া করে গোল আদায়ের চেষ্টা করেছেন।

কে নেবেন পেনাল্টি? নেইমার নাকি কাভানি? গত মৌসুমে লিগ ওয়ানের ম্যাচে পেনাল্টি নিয়ে এই দুই তারকার মধ্যে সৃষ্টি হয় দ্বন্দ্বের। অনেক নাটকীয়তার পর সেই ঝামেলা মিটেছিল। ফুটবলবোদ্ধারা ভেবেছিলেন, এখানেই বুঝি শেষ দ্বন্দ্বের। তবে এল ইকুয়েপের এই পরিসংখ্যানে বোঝা গেল, শেষ হয়েও হয়নি সেই দ্বন্দ্ব!