এফডিসি পরিষ্কার করলেন তারকারা

<h1> 										এফডিসি পরিষ্কার করলেন তারকারা 									</h1>

বসন্তের বাতাস বইছে চারদিকে। অন্যদিকে আজ ১৪ ফেব্রুয়ারি বিশ্ব ভালোবাসা দিবস। বসন্তের সাজে সেজে ভালোবাসা দিবস উৎযাপনে যখন মেতেছে সবাই তখন চলচ্চিত্রকর্মীদের দেখা গেল অন্যরূপে। মিশা সওদাগর, রিয়াজ, পপি, জায়েদ খান ও কেয়ার মতো তারকারা এই দিনে হাতে তুলে নিয়েছেন ঝাড়ু। ভালোবাসা দিবসে পরিচ্ছন্নতার অঙ্গীকার নিয়ে এফডিসির ময়লা আবর্জনা পরিষ্কার অভিযানে নেমেছেন তারা।

বুধবার সকাল ১১টা থেকে নিজেদের প্রাণের প্রতিষ্ঠান এফডিসির অলিগলিতে জমে থাকা ময়লা পরিষ্কার করছেন তারা। মিশা সওদাগর বলেন,‘পরিস্কার পরিচ্ছন্নতার মতো একটা ভালো কাছে আমরা চলচ্চিত্র কর্মীরা আজ সবাই এক হয়েছি। বাংলাদেশের চলচ্চিত্রের সকল উন্নয়নে মিলে মিশে এগিয়ে যাবো আমরা। এফডিসি আমাদের বাড়ি ঘরের মতই। নিজের ঘর পরিস্কার পরিচ্ছন্ন রাখার দায়িত্ব আমাদের নিজেদেরই।’

রিয়াজ বলেন, ‘আজকের এই পরিচ্ছন্ন অভিযানের প্রতিপাদ্য হচ্ছে ‘মন সুন্দর যার, সে রাখে দেশ পরিষ্কার’। আমরা সবাই আমাদের প্রাণের প্রিয় এই দেশকে একটু সচেতন হলেই সুন্দর করে পরিচ্ছন্ন রাখতে পারি। সবাই এগিয়ে আসলে আমাদের দেশটা আরও সুন্দর ভাবে সাজাতে পারব আমরা।’

জায়েদ খান বলেন, ‘শিল্পীরা হচ্ছে একটি পরিবার আর এফডিসি হচ্ছে শিল্পীদের ঘর। তাই আমরা আমাদের ঘরকে পরিছন্ন করছি। আমরা বলতে চাই, সচেতন নাগরিক হিসেবে আপনারা চারপাশ পরিষ্কার রাখুন, তাহলেই দেশটা পরিচ্ছন্ন থাকবে।’

এই চার চিত্রতারকাদদের সাথে আরো ছিলেন চিত্রনায়ক রুবেল, খল অভিনেতা মিশা সওদাগর, ডিপজল, শাহনূর, রোজিনা, নূতন। নতুন চিত্রশিল্পীদের মধ্যে ছিলেন বিপাশা কবির, জয় চৌধুরী, অধরা খান, নাদিম, শান প্রমুখ। অন্যদিকে পরিচালকদের মধ্যে এই কর্মসূচীতে উপস্থিত ছিলেন পরিচালক মুশফিকুর রহমান গুলজার, শাহ আলম কিরণ এবং গাজী মাহবুব প্রমুখ।

পরিচ্ছন্ন বাংলাদেশ গড়ার প্রত্যয় নিয়ে গেল বছর শুরু হয়েছিল ‘ডেটল-চ্যানেল আই পরিচ্ছন্ন বাংলাদেশ পাওয়ার্ড বাই হারিপক’ ক্যাম্পেইন ধারাবাহিক ভাবে দেশের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ স্থান পরিচ্ছন্ন অভিযান করছে।

এরই অংশ হিসেবে ১৪ ফেব্রুয়ারি এফডিসিতে পরিচ্ছন্ন অভিযানের আয়োজন করা হয়। তারকা শিল্পী ছাড়াও আরো এই পরিচ্ছন্ন অভিযানে অংশ নিয়েছেন ঢাকা উ. মেয়র প্রার্থী আতিকুল ইসলাম, সিটি কর্পোরেশনের সলিড ওয়েস্ট ম্যানেজমেন্ট এর ডিজি কমোডোর আব্দুর রাজ্জাকসহ সিটি কর্পোরেশনের কর্মকর্তারা।

এমএবি/এলএ/আইআই

তথ্য সূত্রঃ জাগো নিউজ