সিরিয়ায় মার্কিন হামলায় ২ রুশ যোদ্ধা নিহত

<h1>সিরিয়ায় মার্কিন হামলায় ২ রুশ যোদ্ধা নিহত</h1>

সিরিয়ার উত্তর-পূর্বাঞ্চলে গত সপ্তাহে মার্কিন বিমান হামলায় দুই রুশ যোদ্ধা নিহত হয়েছেন।

যুদ্ধবিধ্বস্ত সিরিয়ার সরকারি বাহিনী তাদের সহায়তার জন্য রাশিয়ার একটি ব্যক্তিগত সামরিক ফার্ম থেকে যোদ্ধা ভাড়া করেছে বলে জানিয়েছে বিবিসি।

মার্কিন গণমাধ্যমে এ নিয়ে খবর ছাপা হলেও রাশিয়ার পক্ষ থেকে কোনো বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

যুক্তরাষ্ট্র বলেছে, গত এক সপ্তাহে তারা শতাধিক সিরীয় যোদ্ধাকে হত্যা করেছে। তবে প্রতিরক্ষামন্ত্রী জেমস ম্যাটিস বলেন, এই হতাহতের মধ্যে কোনো রুশ নাগরিক আছেন কিনা, তার কাছে সে ব্যাপারে কোনো তথ্য নেই।

তিনি বলেন, এ ব্যাপারে আমি কিছুই বলতে পারছি না। কেন্দ্রীয় কমান্ড বা পেন্টাগন থেকে এ নিয়ে কোনো তথ্য আমার কাছে আসেনি।

যুক্তরাষ্ট্রের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, দেইর আল জোর প্রদেশের খুরশাম শহরে যুক্তরাষ্ট্র সমর্থিত সিরীয় ডেমোক্র্যাটিক ফোর্সেসের (এসডিএফ) ঘাঁটিতে বাসার আল আসাদের বাহিনীর কয়েকশ যোদ্ধা হামলা চালিয়েছিল।

তারা ইউফ্রেটিস নদী পার হয়ে এসডিএফের ঘাঁটিতে গোলাবর্ষণ করে যাচ্ছিল। সেখানে যুক্তরাষ্ট্রের উপদেষ্টারা উপস্থিত ছিলেন।

যুক্তরাষ্ট্র তখন যুদ্ধবিমান ও কামান দিয়ে পাল্টা হামলা চালালে আসাদপন্থী যোদ্ধারা পিছু হটতে বাধ্য হয়।

সিরিয়ার স্থানীয় গণমাধ্যম জানিয়েছে, যুক্তরাষ্ট্রের ওই হামলায় কয়েক ডজন লোক নিহত হয়েছেন। মার্কিন বাহিনীর বিরুদ্ধে তখন যুদ্ধাপরাধের অভিযোগ করেছিল সিরিয়া।

তবে রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, সিরিয়ার সরকারি বাহিনী ইসলামিক স্টেট যোদ্ধাদের ওপর হামলা চালিয়েছে। তবে রুশ বাহিনী এতে অংশ নেয়ার কথা অস্বীকার করেছে।

৭ ফেব্রুয়ারি মধ্য ইউফ্রেটিস উপত্যকায় এই হামলার ঘটনা ঘটেছিল। যেটি সিরিয়ার পশ্চিমাঞ্চলের শেষ সীমা বলে চিহ্নিত। আসাদ বাহিনী সিরিয়ার পশ্চিমাঞ্চল নিয়ন্ত্রণ করছে, আর বিরোধীরা পূর্বাঞ্চল।

তথ্য সূত্রঃ যুগান্তর