তবুও আশাবাদী মাহমুদউল্লাহ

<h1>তবুও আশাবাদী মাহমুদউল্লাহ</h1>

ত্রিদেশীয় এবং টেস্ট সিরিজের শুরুতে অসাধারণ খেলেও ট্রফি জেতা হয়নি। টি-টোয়েন্টি সিরিজ শুরুর আগেও ট্রফি জয়ের স্বপ্ন দেখছে বাংলাদেশ। সেই স্বপ্নের কথাই বলে গেলেন বাংলাদেশ দলের অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ।

বৃহস্পতিবার বিকাল ৫টায় মিরপুরে দুই ম্যাচ সিরিজের প্রথম টি-টোয়েন্টি খেলা শুরু হবে। তার আগে বুধবার আনুষ্ঠানিক সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাবে মাহমুদউল্লাহ যা বলেন।

প্রশ্ন: টি-টোয়েন্টি সিরিজের আগে ইনজুরিতে জর্জরিত দল?

মাহমুদউল্লাহ: কিছুটা ইনজুরি কনসার্ন ছিল। তারপরও কাল পর্যন্ত আমরা অপেক্ষা করব।

প্রশ্ন: মুশফিকুর রহিমের খেলার সম্ভাবনা কতটুকু?

মাহমুদউল্লাহ: অনেকটুকু। ওর রিস্টে স্লাইট নিগেল আছে। বাট হোপফুলি ও ওকে থাকবে।

প্রশ্ন: তামিমের কী অবস্থা?

মাহমুদউল্লাহ: গতকাল হঠাৎ করে ও বাহুতে চোট পেয়েছে। আমরা সেরা একাদশ সাজাতে ওর জন্য অপেক্ষা করছি। পাশাপাশি মুশফিকুর রহিমের ব্যাপারটাও আছে। আশা করছি দুজনকেই আগামীকালের ম্যাচে পাব।

প্রশ্ন: টি-টোয়েন্টি সিরিজে কাদেরকে এগিয়ে রাখবেন?

মাহমুদউল্লাহ: ঘরের মাটিতে আমরা যার বিরুদ্ধেই খেলি আমি আমাদের দলকে এগিয়ে রাখব। যদিও আমরা টেস্ট ও ওয়ানডেতে আশানুরূপ পারফরম্যান্স করতে পারিনি। আমার বিশ্বাস ভালো ক্রিকেট খেলেই ঘুরে দাঁড়াতে পারব।

প্রশ্ন: দলের প্রত্যাশা?

মাহমুদউল্লাহ: টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট আলাদা একটা ফরম্যাট। আমাদের টি-টোয়েন্টি সামর্থ্যের ওপর একটা প্রশ্নবোধক চিহ্ন আছে। এই সিরিজে একটা স্টেটমেন্ট দেওয়ার আছে বাকি বিশ্বকে। টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট ফেয়ারলেস ক্রিকেট খেলা উচিত। ফেইলিয়র নিয়ে যদি চিন্তা করেন টি-টোয়েন্টিতে সাফল্যের পরিমাণটাও কমে যাবে।

প্রশ্ন: এক ম্যাচে পাঁচজন নতুন বেশি হয়ে গেল কিনা?

মাহমুদউল্লাহ: আমার কাছে ঠিক ওই রকম মনে হচ্ছে না। তারা সবাই ওয়েল ডিজার্ভিং। বিপিএলে সবাই ভালো খেলেছে, আশা করি সেই ফর্মটা এখানেও ধরে রাখবে। নতুন যারা এসেছেন, তারা সবাই প্রমিজিং। তারা যদি ভালো পারফর্ম করতে পারে তাহলে অনেক দূর যাওয়ার সম্ভাবনা আছে।

প্রশ্ন : বিপিএলের মতো স্বাধীনভাবে অধিনায়কত্ব করবেন কিনা?

মাহমুদউল্লাহ: চেষ্টা করব প্লেয়ারদের কাছ থেকে বেস্ট আউটপুট বের করে নেওয়ার। দলে নতুন যারা এসেছে তাদের পারফর্ম করার সুযোগটা দেব। দলে বেশ কজন অভিজ্ঞ প্লেয়ার আছে। আমরা সবাই মিলে চেষ্টা করব বেস্ট ক্রিকেটটা খেলতে।

প্রশ্ন:তরুণদের নিয়েকতোটা আত্মবিশ্বাসী?

মাহমুদউল্লাহ: যে কয়েকজন নতুন মুখ আছে তারা ক্যাপেবল। আমি খুব এক্সসাইটেড এই সুযোগটির জন্য। আমার মনে হয় সবাই খুব উদগ্রীব আছে। আমাদের দল এই সিরিজটি নিয়ে আত্মবিশ্বাসী।

প্রশ্ন: নতুনদের প্রতি অধিনায়কের মেসেজ?

মাহমুদউল্লাহ: আমি ওদের বলব চাপ না নিয়ে এনজয় করতে হবে। এখানে যারা ভালো করবে তাদের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপেও রাখা হবে।

প্রশ্ন: উইকেট নিয়ে যদি বলেন?

মাহমুদউল্লাহ: পিচ নিয়ে যদি চিন্তা করলে টিমের পারফরম্যান্সে প্রভাব পড়বে। তো এই জিনিসগুলো সাইডে রেখে আমাদের কাজ নিয়ে চিন্তা করতে হবে। ওইটা আমাদের জন্য বেটার হবে।

প্রশ্ন: টি-টোয়েন্টিতে ডট বল একটা সমস্যা?

মাহমুদউল্লাহ: এটা ভালো একটা পয়েন্ট বলেছেন। টি-টোয়েন্টিতে ডট বলের পারসেন্টেজ অনেক বেশি প্রভাব ফেলে। টি-টোয়েন্টিতে যাদের কম ডট থাকে তাদের সফলতার হার বেশি থাকে। এটা খুব গুরুত্বপূর্ণ। যতটা কম করা যায় সেই চেষ্টা থাকবে।

প্রশ্ন: দেরিতে অধিনায়ক ঘোষণা?

মাহমুদউল্লাহ: আমি ঠিক ওইভাবে জিনিসটা চিন্তা করিনি। দায়িত্ব এসেছে, চেষ্টা করব দায়িত্বটা ভালোভাবে পালন করার। টি-টোয়েন্টি শর্ট ফরম্যাটের ক্রিকেট। এখানে স্কিলগুলো কাজে লাগাতে পারলে সেটা হবে পর্যাপ্ত।

তথ্য সূত্রঃ যুগান্তর